Bangla Romantic Story Tomar Amar Prem Part 7 | প্রেমের গল্প

তোমার আমার প্রেম – বাংলা প্রেমের গল্প

Imtihan Imran [ Part – 07 ]

” কি বলেন? আমার বিশ্বাস হয় না। এমন একটা সুন্দর হ্যান্ডসাম ছেলের গার্লফ্রেন্ড নেই?
” ছিল, ব্রেকাপ হয়ে গেছে।
” ওহহো..সর‍্যি।
” ইটস ওকে।
” সিজান সিজান..

আয়ান সদর দরজা থেকে সিজানকে ডাক দেয়।

” কী হয়েছে?
” এইদিকে আয় তো।
” আসছি৷

সিজান চলে যায়। আইরিন সিজানের যাওয়ার দিকে একবার তাকিয়ে, চোখ ফিরিয়ে এনে ডেকোরেশন দেখতে থাকে।

Bangla Romantic Story

বিকালবেলা সিজান, আয়ান গায়ে হলুদ ও বাসরঘর সাজানোর ফুল আনতে বাজারে যায়। আইরিন এবারও তাদের সাথে যেতে চাইলে আয়ান আসতে মানা করে।

সন্ধ্যার কিছুক্ষন আগে তারা ফুল নিয়ে এসে গায়ে হলুদের স্টেজ সাজানোর দায়িত্বে নেমে পড়ে। দুজনকে সাহায্য করার জন্য আইরিন এগিয়ে আসে। আয়ান, সিজান ফুল নিয়ে স্টেজ সাজাচ্ছে। আর তাদের কে আইরিন ফুল এগিয়ে দিচ্ছে।

আইরিনের চাচাতো মামাতো বোনেরা দাঁড়িয়ে উৎসাহ নিয়ে গায়ে হলুদের স্টেজ সাজানো দেখছে।

স্টেজ সাজানো শেষ হলে আয়ান, সিজান দুজনে রেডি হতে চলে যায়। সিজাম রুমে এসে বসতেই ফারিনের ফোন আসে।

” হ্যালো।
” কী করছেন?
” এইতো বসে আছি। এখন রেডি হবো। আপনি?

” লোকজন স্টেজ সাজাচ্ছে। আমি দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে সেটা দেখছি। আচ্ছা আপনি রেডি হোন। হয়ে আমাকে একটা পিক পাঠাইয়েন। দেখি আপনাকে কেমন দেখা যায়?

” ভালো দেখালেও কী? খারাপ দেখালেও কী?
” কিছু না, এমনি দিবেন।
” আচ্ছা। রাখছি।
” হুম।

Bangla New Golpo

সিজান ফ্রেশ হয়ে হলুদ পাঞ্জাবী পড়ে নেয়। চুল গুলো তে হালকা জেল ও গায়ে পারফিউম মেখে সে নিজের রুম থেকে বের হয়। আয়ানের রুমের সামনে এসে আয়ানকে ডাক দিলে। আয়ান ভিতরে আসতে বলে। সিজান রুমের ভিতরে যায়। গিয়ে দেখে আয়ান রেডি হচ্ছে। একটা সাদা গেঞ্জি ও একটা লুঙি পড়ে রেডি হচ্ছে সে। সিজান বিছানায় বসে আয়ানের এই নতুন লুক দেখছে।

” লুঙ্গি আর সেন্ডু গেঞ্জি পড়ে স্টেজে বসবি?
” হ্যাঁ।
” গ্রামে কী এভাবেই বসা হয়?
” হ্যাঁ গ্রামে তো লুঙ্গি আর একটা সেন্টু গেঞ্জি গায়ে দিয়েই গায়ে হলুদের স্টেজে বসা হয়।
” ও আচ্ছা। কিন্তু সত্যি এই লুকে দারুন লাগছে তোকে।

সিজানের কথা শুনে আয়ান হেসে দেয়। আয়ানের রেডি হওয়া শেষ হলে, আয়ান সিজান দুজনেই একসাথে রুম থেকে বের হয়।

দুজনে স্টেজের সামনে এসে দাঁড়ায়। কেউ কেউ এসে আয়ানের সাথে গল্প জুড়ে দিচ্ছে। সিজান পাশে দাঁড়িয়ে চুপ করে দাঁড়িয়ে থাকে।

আইরিন হলুদ শাড়ি পড়েছে। অবশ্য মেয়েরা অনেকেই হলুদ শাড়ি পড়েছে। ছেলেরা পাঞ্জাবি পড়েছে। গায়ে হলুদ বলে কথা। শাড়ি পাঞ্জাবি না হলে চলে না।

আইরিন হুঠ করে এসে সিজানের সামনে দাঁড়ায়। সিজান চমকে উঠে।

” আমাকে কেমন লাগছে বলুন তো?

সিজান আইরিন মেয়েটাকে একবার ভালো করে পরখ করে নেয়। হলুদ শাড়িতে ফর্সা মেয়েটিকে অনেক ভালো মানিয়েছে। তার উপরে মুখে এক চিলতে হাসি লেগে আছে। সব মিলিয়ে অনেক সুন্দর দেখাচ্ছে মেয়েটিকে।

” অনেক সুন্দর লাগছে। (হেসে)
” সত্যি তো নাকি মিথ্যা বলছেন?
” মিথ্যা না সত্যিই বলছি। একদম বউ বউ লাগছে। যেকোনো সময় তোমারও বিয়ে হয়ে যেতে পারে। (হেসে)
” ধ্যাত! কি যে বলেন না? (লজ্জা পেয়ে)

আইরিনের লজ্জা পাওয়া দেখে সিজান মুচকি হাসি দেয়।

” লজ্জাও দেখি আছে তোমার?
” কি আপনি আমাকে বেশরম ভাবছিলেন?
” না না একদম না। ভুল বুঝছো কেনো? একটু কম লজ্জা শরম মনে করছিলাম। কিন্তু এখন দেখি মেয়েটা লজ্জাবতী আছে। (হেসে)

আইরিন হেসে দেয়৷

” জি আমার অনেক লজ্জা শরম আছে। কিন্তু কাউকে বুঝতে দিই না। (হেসে).
” আমি কিন্তু বুঝে গেছি।
” ভালো করেছেন।

Bangla Golpo

আয়ানকে নিয়ে স্টেজে বসানো হলো। সবার প্রথমে হলুদ লাগাতে আসে আয়ানের মা-বাবা। উনার ছেলেকে হলুদ লাগিয়ে আশির্বাদ করে যান।

উনাদের শেষ হলে এক এক করে আয়ানের চাচা চাচী থেকে শুরু করে, সবাই আয়ানকে হলুদ দিয়ে যায়। সিজানও বাদ যায়নি। সেও আয়ানকে হলুদ দেওয়ার জন্য স্টেজে উঠে। সে দুষ্টমি করে আয়ানের পুরো মুখে হলুদ লাগিয়ে দেয়। আয়ানও বাটি থেকে হলুদ নিয়ে সিজানের মুখে মাখিয়ে দেয়। এদের কান্ড দেখে উপস্থিত সবাই হো হো করে হেসে উঠে।

” আপনাকে হলুদ শাড়িতে অনেক সুন্দর লাগছে।
” থ্যাঙ্কিউ।
” আমাকে কেমন লাগছে বললেন না?
” সুন্দর।
” আচ্ছা আপনার বিএফ কয়টা?

ছেলেটার কথা শুনে ফারিন বিরক্ত হয়ে যায়, সাথে রাগও উঠে। কি আজব! বিএফ কয়টা থাকে মানুষের এটাও জানে না। ছেলে টাকে এখন তার অসহ্য লাগছে, সেই প্রথম দিন থেকে তার গায়ে পড়ে কথা বলতে আসে। অসহ্য লোক একটা। নীলার কাজিন দেখে কিছু বলতেও পারে না। আবার সহ্য করতেও কষ্ট হচ্ছে।

” একশ টা। কোনো সমস্যা আপনার?
” রেগে যাচ্ছেন কেনো? আপনার মতো সুন্দরী মেয়েদের অনেক বিএফ থাকতেই পারে।
” হোয়াট! আমাকে দেখে কি আপনার বারো ভাতারি মনে হচ্ছে।

Click Here For Next Part- চলবে…

Writer-: ইমতিহান ইমরান

Leave a Comment